আপনি জানেন কি? – ২৪১২

২৭ খ্রিস্টপূর্বাব্দ থেকে ১৪ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত রাজত্ব করা অগাস্টাস সিজারকে গণ্য করা হয় রোমান সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা হিসেবে। রোমান ঐতিহাসিক সুইটোনিয়াসের মতে, সিজার ভয় পেতেন বজ্রপাতকে। একবার ক্যান্টাব্রিয়ান ক্যাম্পেইনের সময় রাতের বেলায় বসে ছিলেন তিনি। হঠাৎ করেই তার খুব কাছেই বজ্রপাত আঘাত হানে। এতে আগুন ধরে যায় বসার সেই জায়গাটিতে। তারপর থেকেই তার সেই ভীতি কাজ […]


আপনি জানেন কি? – ২৪১১

কিংবদন্তী এবং ‘সিক্রেট হিস্টোরি অভ দ্য মঙ্গোলস’ বইটি থেকে জানা যায় যে, মঙ্গল সম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা চেঙ্গিস খান কুকুরকে ভয় পেতেন।


আপনি জানেন কি? – ২৪১০

স্যাডিজম (Sadism) হলো এক প্রকারের ধর্ষণ। ম্যাসোচিজম এবং স্যাডিজম একই মুদ্রার এপিঠ-ওপিঠ। ম্যাসোচিজম হলো নিজেকে কষ্ট দেয়া আর স্যাডিস্টরা যৌন ক্রিয়ায় অন্যকে তার অনিচ্ছায় জোরপূর্বক একইভাবে কষ্ট দেয়। ম্যাসোচিজম এবং স্যাডিজমে অনেক সময় মৃত্যু পর্যন্ত ঘটে।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৯

ম্যাসোচিজম ডিজঅর্ডারে আক্রান্তদের মধ্যে ২.২% হল পুরুষ এবং ১.৩% নারী। মাত্রাতিরিক্ত পর্নোগ্রাফি আসক্তিই এই ডিজঅর্ডারের প্রধান কারণ।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৮

ম্যাসোচিজসমে আক্রান্ত ব্যক্তিরা সাধারণত যৌন ক্রিয়ার সময় নিজেকে নানাভাবে শারীরিক কষ্ট বা আঘাত দিয়ে আনন্দ পায়। সাধারণত সেক্স করার সময় এরা অন্যের মাধ্যমে নিজেকে প্রহার করে। দড়ি দিয়ে বেঁধে কিংবা ইলেকট্রিক শক দিয়ে বিভিন্ন উপায়ে নিজের কামনা মেটায়।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৭

ফ্রটিউরিজম বা ভিড়ের মধ্যে বিপরীত লিঙ্গের  শরীরে হাত দেয়া কিংবা নিজের যৌনাঙ্গ ভিড়ের মধ্যে আরেকজনের সাথে চেপে ধরার হার ছেলেদের ক্ষেত্রে, মেয়েদের তুলনায় বেশি।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৬

কিছু দেশে ভয়েরিজমকে একটি যৌন অপরাধ বলে মনে করা হলেও উন্নত দেশ কানাডাতে ভয়েরিজমের মতো বিকৃত যৌনাচারের বৈধতা দেয়া আছে।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৫

ফ্রটিউরিজম একটি মানসিক রোগ যেটি সাধারণত জনবহুল জায়গায় বেশি হয়। এতে আক্রান্তরা প্রায়ই ভিড়ের মধ্যে বিপরীত লিঙ্গের শরীরে হাত দেয়, কনুই কিংবা হাত দিয়ে স্তনে চাপ দেয় অথবা নিজের যৌনাঙ্গ ভিড়ের মধ্যে আরেকজনের সাথে ঘষে।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৪

কোনো মেয়ে পোশাক পাল্টাচ্ছে বা গোসল করছে, আর কোনো ছেলে সেটা লুকিয়ে লুকিয়ে দেখে তার যৌন ক্ষুধা মেটাচ্ছে- এ ধরনের বিকৃত যৌনাচরণকে বলা হয় ভয়েরিজম, গোপনে কারও নগ্ন বা অর্ধনগ্ন শরীর বা কারো যৌন কর্ম দেখে সুখ অনুভব করা।


আপনি জানেন কি? – ২৪০৩

নেক্রোফিলিয়া বলতে লাশের সাথে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করাকে বোঝায়। খুবই ভয়ঙ্কর ব্যাপার, তাই না? ড. রোজম্যান এবং র‍্যাসনিকের গবেষণা মতে, ৫৭% নেক্রোফিলিকই হয় মর্গ দেখা-শোনাকারী কিংবা হাসপাতাল সংশ্লিষ্ট কেউ।