একটি মজার বিষয় হলো, তাসের রাজাদের মধ্যে সব রাজার মুখ স্পষ্ট দেখা গেলেও একমাত্র রুইতনের রাজারই মুখ অর্ধেক দেখা যায়।

Read More


রিয়ালে এক যুগের ক্যারিয়ারে এ পর্যন্ত ২৩টি লাল কার্ডটি দেখেছেন রামোস। এর মধ্যে শুধু লা লিগাতেই ১৮ বার লাল কার্ড দেখে এক রেকর্ডেই ভাগ বসিয়েছেন ৩১ বছর বয়সী এ ডিফেন্ডার। স্পেনের শীর্ষস্থানীয় লিগে এর আগে সর্বোচ্চ ১৮ বার করে লাল কার্ড দেখার রেকর্ড গড়েছিলেন পাবলো আলফারো ও জাভি আগুয়াদো।

Read More


তাস খেলায় কিং অব ডায়মন্ডস এর ছবি হলো মূলত রোমের বিখ্যাত শাসক, রাজনীতিবিদ এবং সাহিত্যিক রাজা জুলিয়াস সিজারের।

Read More


মেলবোর্ন ক্রিকেট স্টেডিয়ামটি ১৯৩৮ সালের নভেম্বরে স্থাপিত হয়। এটি অনেকের কাছে ‘দ্য জি’ নামেও পরিচিত। ১৯৫৬ সালের সামার অলিম্পিকের প্রধান স্টেডিয়াম হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছিল এটি। ২০০৬ সালের কমনওয়েলথ গেমস সহ দুটি বিশ্বকাপ ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয় এখানে। অস্ট্রেলিয়াতে এটিই সবচেয়ে বৃহৎ স্টেডিয়াম। পাশাপাশি ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মাঝেও সবচেয়ে বড় এটি।

Read More


স্পেডস তাসের রানী হলেন গ্রিক যুদ্ধ দেবী প্যালাস, যিনি দুই হাতে ধরে আছেন তরবারি ও ফুল। জ্যাকের ছবিটি ফ্রান্সের একটি জনপ্রিয় কাব্যিক চরিত্র।

Read More


রাজা ডেভিডকে কিং অফ স্পেডস বলা হয় যিনি ছিলেন দৈত্যাকৃতি ফিলিস্তাইন যোদ্ধা গোলিয়াথের হত্যাকারী। বাইবেল অনুযায়ী ডেভিড ছিলেন যিশু খ্রিস্টের পূর্বপুরুষ।

Read More


প্রথম দিকে তাসের প্যাকেটে ৭৮টি তাস থাকত। কিন্তু এতগুলো তাস নিয়ে খেলা জটিল ও কষ্টকর হয়ে ওঠায় তাসের সংখ্যা কমিয়ে আনা হয়।

Read More


মিশরের ‘মামলুক’ শাসকরা তাস খেলার নাম দিয়েছিল ন্যাব, নাইবি অথবা নাইপ। খ্রিস্টীয় ত্রয়োদশ শতকে মামলুকরা প্রথম বায়ান্ন তাস দিয়ে এ খেলার প্রচলন করেছিল।

Read More


ইটালির সিয়েনা শহরের পিয়াৎসা দেল কাম্পা চত্বরে বছরে দু’বার করে বিশ্বের সবচেয়ে কঠিন ঘোড়দৌড়ের আয়োজন করা হয়ে থাকে৷ ‘পালিও’ নামের এই ঘোড়দৌড়টি আসলে সিয়েনার বিভিন্ন পাড়ার মধ্যে প্রতিযোগিতা; চলে আসছে মধ্যযুগ থেকে৷

Read More


চ্যম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে নক আউট পর্বে সবচেয়ে বেশী গোল (৫২*) এবং নক আউট পর্বে সবচেয়ে বেশী জয় (৩৭*) পেয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

Read More