ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতপ্রাপ্ত ব্রাজিলের ফার্নান্দো দে নরোনহা দ্বীপটি কোন পৌরসভা বা প্রশাসনের অধীনে নেই। যা আধুনিক বিশ্বে বিরল।

Read More


ব্রাজিলের দ্বীপ ফার্নান্দো দে নরোনহাতে একটি মাত্র হাসপাতালে আছে যেখানে মায়েদের প্রজনন স্বাস্থ্য বিভাগ নেই বলে কোন ধরনের জটিলতা তৈরি হওয়ার ভয়ে সেখানে প্রসবের উপরে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তাই গর্ভবতীদের দ্বীপের বাইরের কোন হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলা হয়েছে।  

Read More


ব্রাজিলের প্রত্যন্ত অঞ্চলের একটি দ্বীপ ফার্নান্দো দে নরোনহাতে বারো বছর পর প্রথম কোন শিশুর জন্ম হল।শহরটির বাসিন্দা মোটে তিন হাজার। সমৃদ্ধ প্রাকৃতিক জীব-বৈচিত্র্যের কারণে এই দ্বীপটি ২০০১ সাল থেকে ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় রয়েছে।

Read More


সৌন্দর্যের পসরা নিয়ে সাজানো সুইজারল্যান্ডের একটি ছোট্ট গ্রামের নাম ব্র্যাভুয়াঁ। ৫৬.২ বর্গমাইল এলাকাজুড়ে বিস্তৃত গ্রামটির মোট জনসংখ্যা মাত্র ৫৩০ জনের মতো। মজার বিষয় হলো  প্রতি বছর বিপুল সংখ্যক পর্যটকের সমাগম ঘটলেও এ গ্রামে ছবি তোলা নিষিদ্ধ করেছে কর্তৃপক্ষ। কেউ ছবি তুললে তাকে গুনতে হবে জরিমানা।

Read More


ফেজ্যান্ট আইল্যান্ডে জনমানুষের চিহ্ন না থাকলেও, ঐতিহাসিকভাবে এটি গুরুত্বপূর্ণ। ১৬৫৯ সালে স্পেন ও ফ্রান্সের মধ্যকার রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পরিসমাপ্তি ঘটেছিল ফেজ্যান্ট আইল্যান্ডে। তখন থেকেই এই দ্বীপ একটি নিরপেক্ষ এলাকা। দুই দেশ সেখানে একটি শান্তিচুক্তিতে সাক্ষর করেছিল। আর চুক্তিতে পৌঁছানোর জন্য প্রায় তিন মাস ধরে মধ্যস্থতা চলেছিল।

Read More


গাছে ঘেরা ফেজ্যান্ট আইল্যান্ডে কোনো লোকজন থাকে না। পর্যটকেরাও যান না খুব একটা। প্রতি বছর ফেব্রুয়ারি মাসের ১ তারিখ থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত এই দ্বীপে চলে স্পেনের শাসন। বাকি ছয় মাস দ্বীপের সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করে ফ্রান্স।

Read More


মালিকানা বদলের ঐতিহ্য বা কোনো স্থানের দ্বৈত সার্বভৌমত্বের বিষয়টিকে বলা হয় কন্ডোমিনিয়াম। ঐতিহাসিকদের মতে, এখনো পর্যন্ত কন্ডোমিনিয়ামের সবচেয়ে পুরোনো উদাহরণ হলো ফেজ্যান্ট আইল্যান্ড।

Read More


ফ্রান্স ও স্পেনের মধ্যকার প্রাকৃতিক সীমান্ত হলো বিদাসোয়া নামের একটি নদী। এই নদীর ঠিক মাঝ দিয়ে গেছে দুই দেশের সীমান্তরেখা।

Read More


স্পেন ও ফ্রান্সের সীমানা বরাবর একটি দ্বীপ আছে যার নাম ফেজ্যান্ট আইল্যান্ড। প্রায় ৩৫০ বছর ধরে ছয় মাস অন্তর অন্তর মালিকানা বদল হয়ে আসছে দ্বীপটির। আকারে ছোট্ট দ্বীপটি লম্বায় মাত্র ২০০ মিটার। আর চওড়ায় ৪০ মিটার।

Read More


আইসল্যান্ডের সাবেক প্রধানমন্ত্রী জোহানা সিগারদোদির হলেন প্রথম লেসবিয়ান প্রধানমন্ত্রী যিনি কিনা কোনো দেশের সরকার প্রধান ছিলেন।

Read More