আপনি জানেন কি? – ২১৬৩

যদি একটা তারা গুনতে ১ সেকেন্ড সময় লাগে তাহলে একটি গ্যালাক্সির সব তারকা গুনতে সময় লাগবে প্রায় ৩ হাজার বছর।


আপনি জানেন কি? – ২০৬০

বিশ্বের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত রেকর্ডকৃত সবচেয়ে বড় ও ভারী শিলাখন্ডটি পতিত হয়েছে বাংলাদেশে। ১৯৮৪ সালের ১৪ এপ্রিল গোপালগঞ্জ জেলায় পতিত এই শিলাখন্ডটির ওজন ছিলো ১ কেজির কিছুটা বেশি।


আপনি জানেন কি? – ১৯৪৮

সুপারমুন এর অপর নাম হল পেরিগি মুন। পেরিগি অর্থ হচ্ছে পৃথিবীর নিকটতম। যেহেতু পূর্ণ পূর্ণিমায় বার্ষিক প্রদক্ষিণের সময় চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি চলে আসে তাই একে পেরিগি মুনও বলা হয়।


আপনি জানেন কি? – ১৯৪১

চাঁদ যখন পূর্ণ পূর্ণিমায় থাকে এবং বার্ষিক প্রদক্ষিণের সময় পৃথিবীর কাছাকাছি চলে আসে, তখন একে সুপারমুন বলা হয় এবং সবচেয়ে উজ্জ্বল চাঁদ শেষবার দেখা গিয়েছিল ১৯৪৮ সালে।


আপনি জানেন কি? – ১৮৭৫

একটি নক্ষত্রকে ভুলবশত এতবার ‘মঙ্গলগ্রহ’ (Mars) ভাবা হয়েছে যে নক্ষত্রটির নামই ‘Antares‘ (Not Mars) দিয়ে দেওয়া হয়েছে!


আপনি জানেন কি? – ১৮৭৪

Radivoke Lajic নামক বসনিয়ান নাগরিককে বলা হয় তিনি নিশ্চয়ই কোন পৃথিবীবহির্ভূত ক্রোধের শিকার! তার বাড়িতে এখন পর্যন্ত ৬ বার উল্কা আঘাত হেনেছে! বিজ্ঞানীরা এই রকম অস্বাভাবিকতার কোন ব্যাখ্যা আছে কিনা তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে।


আপনি জানেন কি? – ১৮৭২

পৃথিবী থেকে ২.৫ বিলিয়ন আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত Quasar 3c273 নক্ষত্রটি সূর্য থেকে ৪ ট্রিলিয়ন গুন বেশি উজ্জ্বল! এটি যদি পৃথিবী থেকে ৩৩ আলোকবর্ষ দূরে অবস্থিত হত তবে সূর্যকে যেমন উজ্জ্বল মনে হয় পৃথিবী থেকে, Quasar 3c273 কেও একই রকম উজ্জ্বল মনে হত যেখানে সূর্য মাত্র ৮+ আলোকমিনিট দূরে অবস্থিত!


আপনি জানেন কি? – ১৮৫৬

শুক্র গ্রহের ১ বছরের তুলনায় ১ দিন বড়। পৃথিবীর সময়ের হিসাবে শুক্রগ্রহের ১দিন ২৪৩ দিনের সমান এবং ১ বছর ২২৪.৭ দিনের সমান।


আপনি জানেন কি? – ১৮২৯

হ্যালির ধূমকেতু প্রতি ৭৬ বছর পরপর একবার পৃথিবী থেকে দেখা যায় এবং ২০৬২ সালে আবার এই ধুমকেতুকে পৃথিবী থেকে দেখা যাবে।


আপনি জানেন কি? – ১৮২৪

পৃথিবীর বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন স্থায়িত্বের সুর্য গ্রহনের কথা শোনা গেলেও একটি সূর্য গ্রহনের স্থায়িত্বকাল সর্বোচ্চ ৭.৩১ মিনিট এর বেশী হতে পারে না।