আপনি জানেন কি? – ২৪৮৭

নারীদের ভোটাধিকারের দাবিতে ১৯১৭ সালের জানুয়ারিতে একদল নারী হোয়াইট হাউসের গেটের সামনে বিক্ষোভ শুরু করে। তারা টানা দুই বছর সেখানে অবস্থান করে। অবশেষে ১৯১৯ সালের ৪ জুন যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন নারীদের ভোটাধিকার দেয়।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮৬

শিশুদের মাটি স্পর্শ তাদের আত্মার ঐশ্বরিকতাকে নষ্ট করে দেয়- এমনটাই বিশ্বাস করা হয় বালিতে। তাই জন্মের প্রথম তিন মাস শিশুকে সব সময় কোলে রাখতে হবে এবং কোনোভাবেই তাদের মাটি স্পর্শ করতে দেয়া যাবে না। এভাবেই সেখানে ঐশ্বরিক দুনিয়ার সাথে শিশুদের বন্ধন অটুট রাখা হয়। সেখানে জন্মের তিন মাস পরে শিশুর পা প্রথম মাটি স্পর্শ করা উপলক্ষ্যে ‘নিয়ামবুটিন’ নামের সামাজিক উৎসবের অয়োজন করা হয়।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮৫

বিড়াল সাধারণত মাংসাশী প্রাণী হলেও যখন ঘাস পাতা খেতে শুরু করে তখন খুব অদ্ভুত লাগে। আসলে বিড়ালের ঘাস খাবার পেছনে কারণ হলো এরা ঘাস থেকে এক ধরণের ভিটামিন পায়। কখনো কখনো নিজের গা চুলকাতে গিয়ে মুখে জড়িয়ে যাওয়া পশম ছাড়াতেও এরা ঘাসের সাহায্য নেয়।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮৪

L’appel du vide হচ্ছে একটি ফ্রেঞ্চ অভিব্যক্তি যা দ্বারা হঠাৎ খুবই ক্ষুদ্র সময়ের জন্য নিজের জীবন নাশক অযৌক্তিক চিন্তা বা কাজ করার যে ইচ্ছে মাথায় আসে বা এরূপ কাজ করার প্রতি যে আকর্ষণ অনুভব হয় তা বুঝানো হয় , যেমন- হঠাৎ ছাদ থেকে লাফ দেওয়ার চিন্তা/ইচ্ছে কিংবা চলন্ত বাস কিংবা ট্রেনের সামনে ঝাপ দেওয়ার চিন্তা/ইচ্ছে। L’appel du vide কে ইংরেজিতে অনুবাদ করলে দাড়ায় ‘The call of the void‘ বাংলায় যা হয় ‘শূন্যের ডাক’।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮৩

বিশ্ববিখ্যাত মুভি Interstellar এ যে কয়েকশ’ একর ভুট্টাক্ষেত দেখতে পাওয়া যায় তা কিন্তু একমাত্র মুভিটি তৈরি করার উদ্দেশ্যেই তৈরি করা হয়েছিল এবং তা করতে যে পরিমান অর্থ খরচ হয়েছিল, পরবর্তীতে ঐ ক্ষেতে উৎপাদন করা ভুট্টা বিক্রি করে সেই অর্থ এসে গিয়েছিল !


আপনি জানেন কি? – ২৪৮২

হোয়াইট হাউসের প্রধান বাসিন্দা মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং তার পরিবার। কিন্তু মজার ব্যাপার হলো, তারা এখানে বিনামূল্যে খাবার পান না। তাদের খাবারের বিল মাস শেষে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। এমনকি টুথপেস্ট কেনা, কাপড় ইস্ত্রি করা ইত্যাদির খরচও নিজেদের বহন করতে হয়।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮১

প্রেসিডেন্ট হ্যারি এস ট্রুম্যান হোয়াইট হাউসের নাম দিয়েছিলেন ‘ঝলমলে বন্দিশালা’। আরেক প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগান এ ভবনকে আট তারকা হোটেলের সঙ্গে তুলনা করেছিলেন।


আপনি জানেন কি? – ২৪৮০

১৯০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের ২৬তম প্রেসিডেন্ট থিওডোর রুজভেল্ট আনুষ্ঠানিকভাবে প্রেসিডেন্টের বাসভবনের নাম “হোয়াইট হাউস” রাখেন।


আপনি জানেন কি? – ২৪৭৯

১৯০১ সালের আগ পর্যন্ত হোয়াইট হাউসের কোনো দাপ্তরিক নাম ছিল না। বিভিন্ন সময়ে একে বিভিন্ন নামে ডাকা হতো। সাধারণত এক্সিকিউটিভ ম্যানশন এবং প্রেসিডেন্ট প্যালেস নামে ডাকা হতো।